ভাষা সৈনিক নিখিল সেনের প্রতি বিসিসি মেয়রের শেষ শ্রদ্ধা

একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক ও বিশিষ্ট সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব নিখিল সেনের প্রয়াণে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। পাশাপাশি তিনি বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) জনাব মোঃ খায়রুল আলম সেখ, জেলা প্রশাসক জনাব এস এম অজিয়র রহমান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব সাইদুর রহমান রিন্টু সহ আরো গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

উল্লেখ্য, আজ ২৫ ফেব্রুয়ারী সোমবার দুপুর ১ টায় বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষনিঃশ্বাষ ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। তিনি হৃদরোগসহ বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন।


মঙ্গলবার শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বরিশাল আদীশ্মশানে প্রয়াতের অন্তেষ্টিক্রিয়া হবে।


আবৃতিতে অবদান রেখে ২০১৫ সালে শিল্পকলা পদক লাভ করেন নিখিল সেন গুপ্ত। নাটকে বিশেষ অবদান রাখায় ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার একুশে পদক সম্মাননা অর্জন করেন প্রতিথযশা এই ব্যক্তি।
এছাড়াও ১৯৯৬ সালে শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা, ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন সম্মাননা ও ২০০৫ সালে শহীদ মুনীর চৌধুরী সম্মাননা অর্জন করেন নিখিল সেন। তার জীবনের প্রথম নাটক সিরাজের স্বপ্ন। ওই নাটকে সিরাজ চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। সেই থেকেই নাট্যজীবন সূচনা তার।রাজনৈতিক জীবনে কমিউনিস্ট আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে অংশ নেন। এছাড়া ৫২’র ভাষা আন্দোলনেও তাঁর সাহসী ভূমিকা ছিল।