স্বল্প-মেয়াদী কর্মপরিকল্পনা

স্বল্প-মেয়াদী (তিন বছরর) কার্যক্রমসমূহঃ ২০১৮-২০২০
১। নগর উন্নয়ন কমিটির মাধ্যমে প্রতি ৬-১২ মাসের স্বল্পমেয়াদী অগ্রাধিকারভিত্তিক উন্নয়ন কর্ম-পরিকল্পনা (অঅচ) প্রস্তÍুত করা ও বাস্তবায়ন; পরবর্তী সভায় মনিটরিং ও মূল্যায়ন করা।
২। বিষেশজ্ঞ দ্বারা জলাবদ্ধতার কারণ চিহ্নিত করে সুপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা ও অবকাঠামো নির্মাণ।
৩। মাস্টার প্লান রিভিউ ও ড্যাপ (উঅচ) প্রস্তুত করা।
৪। খালসমূহ পুনরুদ্ধার করার মাধ্যমে অভ্যন্তরিন নৌ চলাচল ব্যবস্থা গ্রহণ করা।
৫। নগরীর শোভারানীর খাল উদ্ধার করে অন্যতম ঐতিহ্যপূর্ন বদ্ধ ভুমি ও বিনোদন কেনদ্র কীর্তনখোলা নদীর পাড়ের রাস্তা প্রশস্থ করে নগরবাসীর বিনোদন ব্যবস্থা প্রদান।
৬। নগরীতে ১০০% স্যানিটেশন ও পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা।
৭। বরিশাল শহরকে শিশু বান্ধব, পরিবেশ বান্ধব ও সবুজায়ন নগরী হিসাবে গড়ে তোলা।
৮। নগরীর গড়িয়ারপাড়ে আন্তর্জাতিক মানের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এর ডিজাইন ও ডিপিপি অনুমোদন করা।
৯। নগরীর নথুল্লাবাদ বাস টার্মিণালের জায়গায় আধুনিক নগর ভবন এর ডিজাইন ও ডিপিপি অনুমোদন করা।
১০। নথুল্লাবাদ, হাতেম আলী চৌমাথা, জেল খানার মোড়, কাকলীর মোড়, নতুন বাজার, জেলা স্কুলের মোড়, মেডিকেলের সামনে ও জজ কোর্টের সামনে ফুটওভার ব্রীজ নির্মাণ প্রকল্প গ্রহন।
১১। নগরীর আমতলা পার্ক আধুনিকীকরণ ও টিবির পুকুরকে আধুনিক বিনোদন কেন্দ্র ও পার্ক হিসেবে গড়ে তোলা।
১২। নগরীর হাতেম আলী চৌমাথায় আধুনিক বহুতল মার্কেট এর ডিজাইন ও ডিপিপি অনুমোদন করা।
১৩। নগরীর আমানতগঞ্জে আধুনিক কমিইনিটি সেন্টার কাম বহুতল মার্কেট এর ডিজাইন ও ডিপিপি অনুমোদন করা।
১৫। শহরের গুরুত্বপুর্ণ স্থানে চঁনষরপ ঞড়রষবঃ/ ডধংয জড়ড়স তৈরী করা। শিশু ও মহিলাদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা।
১৬। নগরীর প্রতিটি এলাকায় পর্যাপ্ত আধুনিক ডাস্ট-বিন এর ব্যবস্থা গ্রহন করা। নগরীর গুরুত্বপুর্ণ খাল ও ড্রেনসমূহ প্রতি বর্ষা মৌসুমের আগে ক্রাস প্রোগ্রামের আওতায় পরিস্কার করা। নতুন বাজার/ বড় বাজার/ হাটখোলা/ পেয়াজ পট্টি/ মাছের আড়ৎ, কলা পট্টি সহ সকল বাজারের ময়লা-আবর্জনার বিশেষ ব্যবস্থা যাতে উহা জেল খালে না ফেলা হয়।
১৭। কীর্তনখোলা নদীর পাড়ে অসমাপ্ত শহর রক্ষা বাাঁধ-কাম রিং রোড ও লিনিয়ার পার্ক নির্মাণ এর ডিজাইন ও ডিপিপি অনুমোদন করা।
১৮। জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন এলাকায় সমন্বিত আরসিসি ড্রেন নির্মাণ প্রকল্প গ্রহন।
১৯। জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে পলাশপুর, রসুলপুর ও কলাপট্রি এলাকায় সমন্বিত আরসিসি ড্রেন নির্মাণ।
২০। বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সকল কার্যক্রমকে সম্পূর্ণ অটোমেশন ও ওয়ান স্টপ সার্ভিস এর আওতায় এনে সর্বোচ্চ নাগরীক সেবা প্রদান করা।
২১। মাদক মুক্ত ও সন্ত্রাসমুক্ত নগরী গড়া।